কিছু অগোছালো কথন |তুমি এলে এ ভবে, হে উসামা! | কবি সালাবা

তুমি এলে এ ভবে ‘হে উসামা’,উচুঁ করে শির ও আমামা। আগমন করিলে তুমি এ ধরায়ে, ধ্বনিত হলো তাকবীর নারায়ে। ত্যাগিলে তুমি ‘সৌদির রাজকীয় আরাম’, তাগুতের ঘুম যে করে দিলে হারাম। করিলে ত্যাগ তুমি ‘প্রাচুর্যের মোহ’, ফের হলো শুরু ‘বিজয়ে হক্বের সমারোহ’। হাকিলে তুমি বিপ্লবী হুংকার, ‘শিরে কুফর’ থাকিতে পারিবেনা এখানে আর। ফরমাইলে ঘোষণা ‘বিতাড়ন চাই... Continue Reading →

সংশয় নিরসন | দুটি কমেন্ট ও তার জবাব | কবি সালাবা

মাঠে ময়দানে আপনাদেরকে দেখতে পাই না তো। যত্তসব অনলাইনে । এতটাই যদি সহীহ আকিদা নিয়ে চলেন, তা আপনাদের তো খুজে পাওয়া যায় না তখনও, যখন রাসুলের বিরুদ্ধে কটাক্ষ করা হয়। কোথায় থাকেন তখন আপনারা? বিভ্রান্তি ছড়ানোই কি আপনাদের লক্ষ? জবাবঃ হে সত্য সন্ধানী! আপনার বিবকের দরজা খুলুন…। নবিদ্রোহী যতোগুলি নাস্তিক-ব্লগারকে হত্যা করা হলো, সেগুলো কারা... Continue Reading →

খোদাদ্রোহীদের প্রতি খোলা চিঠি | কবি সালাবা

খোলা চিঠি তুমি দেখেছো অনল… কিন্তু দেখনি তার উত্তাপ, অনুভব করোনি তার কঠোরতা, পরখ করোনি তার বাস্তবতা। সে যখন উঠবে ফুসে, ভষ্ম করে দিবে সব অনায়াসে… তুমিতো দেখেছো জল… তবে, দেখনি তার ফল। দেখনি তার গভীরতা, জোয়ারের অদম্য তীব্রতা আর খরস্রোতের দুর্দান্ত উত্তালতা। সে যখন উঠবে জেগে, ভাসিয়ে নিয়ে যাবে তোমায় তুমুল বেগে… তুমি দেখতে... Continue Reading →

আক্ষেপ! হে ভাই, পারলাম না কিছু করতে তোমার জন্য | কবি সালাবা

​এর থেকে বেশী আফসোসের আর কি থাকতে পারে?। আমার ২০ হাত দূরেই অবস্থানরত আমার সফরের পথেরই এক পথিক। অথচ তাঁকে দেখিনি কখনো, চিনতেও পারিনি। তাঁর আর আমার রাহবার একজনই, গন্তব্যও এক, উদ্দেশ্যও একই। কিন্তু কখনো দর্শন করতে পারিনি তার অবয়বখানা, শ্রবণ করতে পারিনি তাঁর সুরখানা, লাভ করতে পারিনি তাঁর সান্নিধ্যতা। আহ্ কতইনা আক্ষেপ! আমার বারান্দার... Continue Reading →

তোমাদের প্রতি, হে যুবক! আসবে কি তুমি? | কবি সালাবা

তোমাদের প্রতি, হে যুবক! আসবে কি তুমি?। আসবে কি নির্যাতিত মানবতার মুক্তির দূত হয়ে?। এসে শামীল হবে কি তুমি বিজয়ী উম্মাহর হক্বের কাফেলায়, শহীদানের কাতারে?। : এসো হে এসো। হে তরুণ তুমি এসো। হে যুবক তুমি এসোদ্বীনের পথে চলতে, খোদার রাহে লড়তে। এসো হে এসো। এসো হে তুমি এসো।শরীয়াহ কায়েম করতে, খোদার বিধান গড়তে। এসো... Continue Reading →

বিপর্যয় ওদের জন্য | কবি সালাবা

-বাবা! তুই কি চাস আমি রাস্তায় রাস্তায় পাগলের মতো ঘোরাঘুরি করি?। -না, তা কেন চাবো?।-তাহলে তুই এটা কি করতেছিস?। -কেন? আমি আবার কি করলাম?।-মুফতী সাব হুজুর কইলো আপনার ছেলেরে নিষেধ কইরেন, ও বেশী বুঝতেছে। জঙ্গীদের সাথে যোগ দিছে। নিজের জীবনটাকে বরবাদ করে দিতেছে, নিজের জন্য ধ্বংস ডেকে আনতেছে। ওর বয়স আর কতই হবে? ও বেশী... Continue Reading →

বড় ভাইয়ের প্রতি না বলা কথা | কোথায় আছেন এবং কেমন? | কবি সালাবা

হে প্রিয় ভাই, জানিনা কোথায় আছেন এবং কেমন!আজও আপনার নূরানি মুখখানা চোখের সামনে ভেসে উঠে আর অবুঝ মনে একরাশ ব্যথা দিয়ে যায়। আমি বেদনায় ভারাক্রান্ত হয়ে যাই, ব্যথায় কুকিয়ে উঠি। আমি যাতনার গহীন অরণ্যে হারিয়ে যাই, অবচেতন মনে অপলক তাকিয়ে থাকি। বিলীন হয়ে যাই আমি কষ্ট নামক অথৈ সাগরটির অতল গভীরে, নিমজ্জিত হই হতাশার ঘোর... Continue Reading →

কেন এমনটা, হে বন্ধু?! | কবি সালাবা

​হে বন্ধু! দুনিয়ার এ দুঃখে কেন তুমি ভারাক্রান্ত হয়ে হতাশ হয়ে যাও?। অথচ তা  ক্ষণস্থায়ী, ক্ষণিকের জন্য…হে পথিক! তুমি কেন সফরের গন্তব্য ভুলে অপ্রাসঙ্গিক বিষয়ে মশগুল হয়ে যাও?। অথচ তোমার সম্মুখে বিরামহীন সফর…হে বিচক্ষণ! তুমি কেন এ অস্থায়ী দুনিয়ার ক্ষণস্থায়ী প্রাচুর্য ও ভোগ-বিলাসে মত্ত হয়ে ভুলে যাও সে পরকালকে?। যেখানে আছে অনন্ত সুখের অসীম জান্নাত…হে... Continue Reading →

একচিলতে বাস্তবতা | কবি সালাবা

এমন কিছুর প্রতি তুমি তাওয়াজ্জুহ কর… যার থেকে তুমি পাবে যথাযথ মূল্যায়ন, উত্তম পুরস্কার ও অকৃত্রিম ভালবাসা। যার স্থায়িত্ব হবে অসীম-অশেষ…দুনিয়ার ধোকার মায়াজালে সুদর্শনরূপে সাজানো ক্ষণস্থায়ী কোন জিনিষের প্রতি ধাবিত হয়োনা… কেননা, তা তোমার জন্য কোন কল্যাণ বয়ে আনবেনা… 

Create a website or blog at WordPress.com

Up ↑

Create your website at WordPress.com
Get started